বায়ুসেনার এয়ার স্ট্রাইকের পর‌ও , অক্ষত মাদ্রাসার ছাদ,ক্ষয়ক্ষতি নিয়ে সংশয়ে জনগন

Share

“বায়ুসেনার এয়ার স্ট্রাইকের পর‌ও , অক্ষত মাদ্রাসার ছাদ,ক্ষয়ক্ষতি নিয়ে সংশয়ে জনগন”
এই ধরনের হেডলাইন দেওয়া অনেক নিউজ ইতিমধ্যে আপনার চোখে এসেছে নিশ্চয়ই।আর এই নিউজ গুলির প্রধান সোর্স হল লন্ডন ভিক্তিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের রিপোর্ট ,যেখানে তারা বালাকোটের জঙ্গী আস্তানার একটি স‍্যাটেলাইট ইমেজ প্রকাশ করে দাবী করেছে যে,ভারতীয় বায়ুসেনার এয়ার স্ট্রাইকের পর‌ও বালাকোটের জঙ্গী আস্তানা অক্ষত আছে।

এবার একজন সাধারণ জনগন হিসাবে আপনি ঐ স‍্যাটেলাইট ইমেজ দেখে সাধারণত‌ই সংশয়ে পারবেন।এতে আপনার দোষ নেই।
তবে আপনি যেহেতু কোন বিশেষজ্ঞ নন,তাই কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ব‍্যাপার আপনার চোখ এরিয়ে যাবে,যেগুলিকে একজন বিশেষজ্ঞ‌ই আপনাকে ধরিয়ে দিতে পারবে।

আগের পোষ্টে বলেছিলাম অপারেশনে ব‍্যাবহার করা স্পাইস-২০০০ একটি স্মার্ট বম্ব,এটি বিল্ডিং এর ভেতরে ঢুকে টার্গেটকে ক্ষতম করে।বিল্ডিং ধংস করে না।তাই রয়টার্সের ছবিতে আপনি খালি চোখে বিশেষ পার্থক্য দেখবেননা।রয়টার্স এই ছবি গুলি সংগ্রহ করেছে কমার্সিয়াল স‍্যাটেলাইট থেকে , তাই ছবি গুলি স্পষ্ট নয়।ছবি স্পষ্ট হলে আপনার চোখে অনেক কিছু ধরা পরত।তবুও এই ঘোলাটে ছবিতেও আপনি দেখতে পাবেন স্ট্রাইটের পরে টার্গেট হ‌ওয়া জঙ্গী আস্তানার ছাদের রঙের এবং আকারের পরিবর্তন এসেছে ,স্পষ্টত‌ই এখানে ক্ষয় প্রাপ্ত ছাদের উপকরন পাল্টে নতুন করে পেইন্ট জব করা হয়েছে দ্রুত সময়ে।আপনি দেখতে পাবেন স্ট্রাইকের পর জঙ্গী মাদ্রাসার আঙ্গিনার পরিবর্তন এসেছে,দ্বিতীয় ছবিতে আঙ্গিনার উঠোনের মাটি খোড়া হয়েছে,স্পষ্টত‌ই এখানে গনকবর খুরে জঙ্গীদের কবর দেওয়া হয়েছে।আপনি স্ট্রাইকের পর দ্বিতীয় ছবিতে দুটি ভেহিকেল ,যাদের মধ্যে একটি অ্যাম্বুলেন্স কেও সনাক্ত করতে পারবেন।

একটি কমার্শিয়াল স‍্যাটেলাইট দিয়ে এর চেয়ে ভালো ছবি আসে না।বিশ্বাস করুন,ভারতীয় মিলিটারির কাছে পৃথিবীর কিছু টপ লেভেলের সার্ভিলেন্স স‍্যাটেলাইট আছে,যা দিয়ে একটি গাড়ির নাম্বার প্লেটের নাম্বার পর্যন্ত পড়া যায়।বায়ুসেনা ১২ পেজের হাই রেজুলেশনের স‍্যাটেলাইট ইমেজ জমা দিয়েছে সরকারের কাছে।অপেক্ষা করুন কিছু দিন ,সব প্রমান সামনে চলে আসবে।আর ততদিন দয়া করে কোন মিডিয়ার TRP বৃদ্ধির ফাদে পা দেবেন না।

KNIGHT

"বায়ুসেনার এয়ার স্ট্রাইকের পর‌ও , অক্ষত মাদ্রাসার ছাদ,ক্ষয়ক্ষতি নিয়ে সংশয়ে জনগন" এই ধরনের হেডলাইন দেওয়া অনেক নিউজ…

Posted by The Great Indian Defence News In Bengali. on Wednesday, March 6, 2019

Leave a Reply